১৭তম শীর্ষ সার্ক সম্মেলন শেষ হয়েছে
১১ নভেম্বর, ২০১১ ১০:৪১ অপরাহ্ণ
-

আঞ্চলিক যোগাযোগ, ব্যবসা-বাণিজ্যের উন্নয়ন ও সন্ত্রাসবাদ দমনসহ ২০ দফা ঘোষণার মধ্যদিয়ে আজ দক্ষিণ এশিয়া আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থার (সার্ক) ১৭তম শীর্ষ সম্মেলন শেষ হয়েছে।
মালদ্বীপের রাজধানী মালে থেকে ৬শ’ কিলোমিটার দূরে আদ্দু নগরীতে দু’দিনব্যাপী এ সম্মেলনের শেষ দিনে দেশটির প্রেসিডেন্ট ও সার্কের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নাশিদ এই ঘোষণা পাঠ করেন।
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভূটানের প্রধানমন্ত্রী জিগমে ওয়াই থিনলে, নেপালের প্রধানমন্ত্রী বাবুরাম ভট্টরাই, ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি ও শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মহিন্দ রাজাপাকসে এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই বৃহস্পতিবার শীর্ষ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু জরুরি প্রয়োজনে আজ সকালে তিনি স্বদেশের উদ্দেশ্যে মালদ্বীপ ত্যাগ করেন।
এ নিয়ে মালদ্বীপে তিনবার সার্ক শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে দু’বার ১৯৯০ ও ১৯৯৭ সালে দেশটিতে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সার্ক ঘোষণায় বলা হয়- ১. সাপটার পূর্ণাঙ্গ ও কার্যকর বাস্তবায়নের উদ্যোগ ত্বরান্বিত করা, স্পর্শকাতর পণ্যের তালিকা হ্রাস ও অশুল্ক বাধা যথাসম্ভব দূর করা এবং পণ্যের মান ও শুল্ক ব্যবস্থার সমন্বয় সাধন প্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্ন করতে সাপটা মিনিস্টিরিয়াল কাউন্সিলকে নির্দেশ দেয়া হয়।
২. আর্থিক মূলধন প্রবাহ ও আঞ্চলিক দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ সম্প্রসারণের প্রস্তাব প্রণয়নে সার্ক অর্থমন্ত্রীদের দায়িত্ব দেয়া হয়।
৩. ২০১২ সালের মধ্যে মালদ্বীপের কুলহুধুফফুসিতে সার্ক পর্যটন মেলার পাশাপাশি ১২তম সার্ক বাণিজ্য মেলার আয়োজন এবং বিশ্বব্যাপী দক্ষিণ এশিয়াকে তুলে ধরতে এই অঞ্চলের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট বেসরকারি খাতকে সম্পৃক্ত করে একটি রূপরেখা প্রণয়ন।
৪. কাউন্সিল অব মিনিস্টারস-এর পরবর্তী বৈঠকের আগে আঞ্চলিক রেল যোগাযোগ চু্িক্ত এবং মোটরযান সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ গ্রুপের বৈঠক এবং বাংলাদেশ-নেপাল ও ভারতের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রেনের পরীক্ষামূলক চলাচল সম্পন্নের নির্দেশ দেয়া হয়।
৫. ২০১১ সাল শেষ হওয়ার আগে সম্ভাব্যতা সমীক্ষাসহ ভারত মহাসাগরে কার্গো ও যাত্রী ফেরি চালুর প্রস্তুতিমূলক কাজ সম্পন্ন করতে সার্ক মহাসচিবকে নির্দেশ দেয়া হয়।
৬. জলবায়ু পরিবর্তন শীর্ষক থিম্পু বিবৃতি যথাসময়ে বাস্তবায়ন নিশ্চিত করা।
৭. জ্বালানি সহযোগিতার জন্য আন্তঃসরকার কাঠামো চুক্তি এবং আঞ্চলিক জ্বালানি বিনিময় ও বিদ্যুতের জন্য সার্কের বাজার শীর্ষক ধারণা বা প্রস্তাবনার ওপর সমীক্ষা সম্পন্ন করা।

পাঠকের মন্তব্য