বিদেশি বন্ধুদের মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দিলেন প্রধানমন্ত্রী
২০ অক্টোবর, ২০১২ ৪:১৭ অপরাহ্ণ
-

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান রাখার জন্য বিদেশি বন্ধুদেরও মুক্তিযোশনিবার বেলা ১টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‍অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় তিনি বলেন, “মুক্তিযুদ্ধের সময় শুধু বাঙালি নয়, সারা বিশ্বের যেসব বন্ধু ‍আমাদের সমর্থন দিয়েছিল, জনমত তৈরি করেছিল, তারও মুক্তিযোদ্ধা।এ বন্ধুরা নিজ নিজ দেশে, কর্মস্থলে জনমত তৈরিতে কাজ করে। নিজ নিজ সরকারকে চাপ প্রয়োগ করে। আমাদের অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এ সম্মান যেন নিজের দেশের মানুষকে সম্মান করার সমান এবং তারাও মুক্তিযোদ্ধা।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমারা গত ২৭ মার্চ সংবর্ধনা দিয়েছি, আজকে দিচ্ছি এবং আগামী ডিসেম্বরে আবার ‍দেব। ভবিষ্যতে আমাদের এই উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক, বৈষম্যহীন ও সুষম উন্নয়নের দেশ। ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে এদেশ সকলের।” বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তপূর্ণ একটি দেশে পরিণত হবে এই চেষ্টাই আমরা করে যাচ্ছি।”

তিনি আরও বলেন, “যে জাতি স্বাধীনতার জন্য এতো রক্ত দিতে পারে সে জাতি বিশ্বসভায় আত্নমর্যাদাশীল, ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত জাতি হিসেবে মাথা উচুঁ করে দাঁড়াবে এতে কোনো সন্দেহ নেই।”

শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা চাই বর্তমান প্রজন্মের প্রতিটি ছেলেমেয়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানুক। বিজয়ী জাতি হিসেবে মাথা উঁচু করে চলুক।”

সবশেষে মহান মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান রাখার জন্য বিদেশি বন্ধুদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

দ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পাঠকের মন্তব্য