দুর্নীতির অভিযোগে পদ্মা সেতু নির্মাণে অর্থসহায়তা স্থগিত
১১ অক্টোবর, ২০১১ ২:২৪ পূর্বাহ্ণ
-

দুর্নীতির অভিযোগে বিশ্বব্যাংক অর্থসহায়তা স্থগিত করেছে। পদ্মা সেতু নির্মাণে ১২০ কোটি ডলার ঋণ সহায়তার চুক্তি হয়েছিল বিশ্ব ব্যাংকের সঙ্গে। পদ্মা সেতুর পরামর্শক নিয়োগ নিয়ে যে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে তার তদন্ত শুরু করেছে বাংলাদেশের দুর্নীতি দমন কমিশন ।

যে প্রতিষ্ঠানকে কেন্দ্র করে বিশ্বব্যাংক অর্থায়ন স্থগিত করেছে, সেই কানাডিয়ান কোম্পানি এসএনএস লাভালিন এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের তালিকায় ভালো প্রতিষ্ঠান। পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সংক্ষিপ্ত তালিকায় নাম ছিল লাভালিনের। তালিকাভুক্ত হওয়ার দৌড়ে লাভালিন এগিয়ে গিয়েছিল, যা এডিবির জন্য ছিল ইতিবাচক।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত গতকাল সোমবার তার মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের বলেছেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে নদী শাসন, পরামর্শক নিয়োগ এবং প্রাক-যোগ্যতা যাচাই নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে বলে বিশ্বব্যাংক অভিযোগ করেছে। তারা আপাতত অর্থায়ন স্থগিত করেছে। পুরো বিষয়টি নিয়ে সরকার তদন্ত করবে। দুদক এ বিষয়ে কাজ শুরু করেছে।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ২৯০ কোটি ডলার। বিশ্বব্যাংক ছাড়া এডিবি ৬১ কোটি, জাইকা ৪০ কোটি এবং ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংক ১৪ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এ সেতু নির্মাণের জন্য।

পাঠকের মন্তব্য